মঙ্গলবার , মে ২১ ২০২৪

হাজীগঞ্জে ২০২০ সালে বিএনপির হারালো দশ প্রাণ

খালেকুজ্জামান শামীম

২০২০ সাল। গেল বছরজুড়ে হাজীগঞ্জ উপজেলার বিএনপির জন্য ছিল শোকাবহ বছর। এক বছরে দায়িত্বশীল দশ নেতাকে হারালো দলটি। উপজেলার ইতিহাসের পাতায় যুগ যুগ ধরে থাকবেন চারবারের সংসদ সদস্য এম.এ মতিন। তিনি ২০২০ সালে প্রাণ হারান। এছাড়াও যারা উপজেলা বিএনপির বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদ ও দায়িত্ব পালন করেছেন, তাদের মধ্যে আরো নয়জন নেতা মারা গেছেন ২০২০ সালে।

২০২০ সালে বিএনপির অন্য যারা মারা গেলেন, তারা হলেন হাজীগঞ্জ পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান মিয়াজী,পৌর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌর কাউন্সিলর মো. আবু বকর ছিদ্দিক, ৫নং সদর ইউনিয়স বিএনপির সভাপতি মো. তাজুল ইসলাম পটোয়ারী, উপজেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক প্রফেসর নাসির আহম্মেদ, পৌর বিএনপির আহবায়ক আবদুল আউয়াল সর্দার, পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি নাদিম উল্ল্যাহ নাদিম, পৌর কাউন্সিলর ও বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মো. আবুল কাশেম, পৌর প্যানেল মেয়র ও পৌর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এইচ এম কবির খান, ৭নং বড়কুল ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মো. মহিউদ্দিন মুন্সী।

হাজীগঞ্জ পৌর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকির মজুমদার বলেন, গেল বছরে যারা মারা গেল, তারা হাজীগঞ্জ উপজেলা ও পৌর বিএনপির প্রথম সারির নেতা ছিলেন। তাদের প্রয়াণে শূণ্যস্থান পূরণ সম্ভব নয়। এতে করে হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি বিএনপির ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে। পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।
দলের এই শোকাবহ বছর নিয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যাপক মোজাম্মেল হক চৌধুরী মোহন বলেন, আমরা দলের ত্যাগী নেতাদের হারিয়েছি। যা কখনও পূরণ হবার নয়। তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। পরিবারের প্রতি রইল সমবেদনা।

হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি বিএনপির প্রধান সমন্বয়ক ইঞ্জিনিয়ার মমিনুল হক যুগান্তরকে বলেন, আমরা দলের দুঃসময়ে ত্যাগী নেতাদের হারিয়েছি। দুঃখজনক হলেও সত্য, প্রয়াতদের মধ্যে অনেকেই মামলার আসামী। আমরা মৃত নেতাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।