শুক্রবার , জুলাই ১৯ ২০২৪

মতলব উত্তরে ফাঁস দিয়ে আত্ত্বহত্যা

গোলাম নবী খোকন
মতলব উত্তর উপজেলার সুলতানাবাদ ইউনিয়নের টরকী ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্র নির্মান কাজের সেটে সাইট ইন্জিনিয়ার সুমন শেখ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্ত্বহত্যা করেন।
সরেজমিনে জানা যায়, টরকী লঞ্চ ঘাট সংলগ্ন বেড়ীবাঁধের ভিতর ১০ শয্যাবিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যন কেন্দের নির্মান কাজ চলমান, একাজের সাইট ইন্জিনিয়ার মোঃ সুমন শেখ, তিনি বিগত এক দের বছর পূর্ব থেকে এখানে বিল্ডিং নির্মান কাজের দায়িত্ব পালন করেন,
তিনি গত কাল ৩ জুন রাতে একটি টিনের সাপরা বা সেটের ভিতর তার থাকার ঘরে গলায় তোয়ালে পেঁচিয়ে বাশেঁর লরার সাথে বেধে ফাঁস দিয়ে আত্ত্বহত্যা করে।
ঘটনার বিবরনে আর ও জানা যায়, নিহতের বাড়ি বাগেরহাট জেলার বাগের হাট সদর থানার ২ নং বেমড়তা ইউনিয়নের চর গ্রামের জনৈক কবির শেখের এক মাত্র ছেলে মোং সুমন মিয়া, তার নামে একটি SYMON SUMON(SHEIKH) ফইসবুক আইডি খোলা আছে।
তিনি গত ৫/৬ মাস পূর্বে মতলব দক্ষিনে চরমুকুন্দি গ্রামের সেলিম কবিরাজের মেয়ে সাথীকে প্রেম সম্পর্ক করে বিয়ে হয়, নির্মান কাজে থাকা ফোর ম্যান খোরশেদ আলম জানান নিহত ইঞ্জিনিয়ার সুমন শেখ মতলব দক্ষিণে ব্যাংন্কে টাকা লেন দেন করার জন্য আসা যাওয়া করে, এবং ঐ সওদাগর মেয়ে সাথী তিনি ও ঐ ব্যাংন্কে আসা যাওয়া করতেন,
এ সুবাদে তাদের দু,জনের প্রেমের সম্পর্ক হয়, এবং বিয়ে হয়। এ ব্যপারে মেয়ের ভাই সুমন জানান আমরা সকালে এ মৃত্যুর খবর শুনে ঘটনাস্হল আসি, দেখি যেই সেটে আমার বোন আত্ত্বহত্যা করছে এ সেটের ভিতর সিকল দেওয়া, তিনি সেটের দরজা বাহির লাথি দিয়ে খোলে দেখেন তার বোনের জামাই ফাঁসিতে ঝুলানো, এ ঘটনা শুনে মতলব সার্কেল আহসান হাবিব ও মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ নাসিরুদ্দিন মৃধা,
তদন্ত কর্মকর্তা শাজান কামাল সেকেন্ড অফিসার মহিউদ্দিন সহ সংঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন ও স্হানীয় লোকজনকে জিজ্ঞাসা করে লাশের সুরুতহাল রির্পোট তৈরী লাশ মর্গে নিয়ে যায়। এএসপি মতলব সার্কেল আহসান হাবিব ও ওসি সাংবাদিকদের জানান আমরা প্রাথমিক ভাবে সুরুতহাল রার্পোট তৈরী করেছি, এবং এ ঘটনার রহস্য উৎঘাটনের ব্যপারে আমরা কাজ করছি।