মঙ্গলবার , জুন ২৫ ২০২৪

ফরিদগঞ্জ লড়াইচরে অগ্নিকান্ডে বসতঘর পুড়ে ছাই

ফরিদঞ্জ প্রতিনিধি

আগুন ও নদীয়ে ধরলে যেমন কিছুই পাওয়া যায় না। তেমনি করে সব হারিয়ে হতাশায় ভুগছেন বৃদ্ধ আনচুরা বেগম।

ফরিদগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম চরদুঃখিয়া লড়াইরচরে অগ্নিকান্ডে এক বিধবার বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। অগ্নিকান্ডে নগদ অর্থ, আসবাবপত্র, স্বর্ণালঙ্কারসহ প্রায় ১ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত ঘর মালিক মোসাঃ আনচুরা বেগম (৭০)।

গত ১৩ মে বুধবার ভোর রাত্রে উপজেলার পশ্চিম চরদুঃখিয়া ইউনিয়নের লডাইরচর গ্রামের সাবেক মৃত আলী মেম্বার বাড়িতে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসির প্রানের দাবি আনচুরা বেগমের পাশে দাড়ালে প্রশাসনে প্রতি চিরকৃতজ্ঞ থাকবে।

ক্ষতিগ্রস্ত আনচুরা বেগম জানায়, রাত্রে তারাবীর নামাজ শেষে ঘুমিয়ে গেলে হঠাৎ রাত্র আনুমানিক ২টার সময় আগুনের তাপ অনুভব করলে আনচুরা বেগম চিৎকার করে। সাথে সাথে আশপাশের এলকাবাসী পানি দিয়ে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে আগুন নিভায়। ততক্ষণে ঘরটি পুরো পুরি জলে যায়।

সরেজমিনে জানা যায়, বিধবা আনচুরা বেগমের বসত ঘরটির সকল আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। সে এখন অন্যের ঘরে রাত্রে থাকে দিনে নিজের পুড়ে যাওয়া ঘরের কাছে নি:শ্ব হয়ে বসে থাকে। সে অসহায় অবস্থায় দিনাতীপাত করতেছে, ঘর সহ প্রায় ১লাখ টাকার মালামালের ক্ষতি হয়।

ইউপি চেয়ারম্যান হাছান আব্দুল হাই জানান, মৃত আলী আহাম্মদ মেম্বারের বিধবা স্ত্রীর থাকার বসত ঘরটি আগুনে পুড়ে ঘটনা শুনেছি। আমরা উপজেলার সাথে কথা বলে পরবর্তীতে তাকে সরকারিভাবে সহযোগিতা করা হবে।

এলাকার ইউপি মেম্বার হাজী মিজানুর রহমানের সাথে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করলে বলেন আমি চেয়ারম্যানের সাথে আলাপ করে প্রশাসনিক ভাবে এ ক্ষয় ক্ষতির ব্যাবস্তা করা যায় কিনা চেস্টা করবো। আমি পরদিন সকালে ঘটনাস্থল দেখে এসেছি।

প্রতিবেশী তানভির জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত ঘটতে পারে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় পোনে এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে পাশের পুকুর থেকে পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।