শুক্রবার , জুন ১৪ ২০২৪

ফরিদগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধে বাচ্চু মিয়াকে রক্তাত জখম। থানায় অভিযোগ

ফরিদগঞ্জ সংবাদদাতা

ফরিদগঞ্জের আলোনিয়া গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে বাচ্চু মিয়া নামের এক ব্যাক্তিকে প্রতিপক্ষ মোঃ খালেক পাটওয়ারীর নেতৃত্বে এক দল সন্ত্রাসী পিটিয়ে মাথা ফাঁটিয়ে রক্তাত জখম করেছে গত ২৮ এপ্রিল/২০ইং। এবিষয়ে বাচ্চু মিয়া ফরিদগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

৪ এপ্রিল সোমবার সরেজমিন গেলে বাচচু মিয়া ও প্রতিবেশীরা জানাযায়, ঘটনার দিন বাচ্চু মিয়া তার ক্রয়কৃত ও বায়না সূত্রে মালিকানা জায়গায় গাছ কাটতে লেবার পাঠালে প্রতিপক্ষ অন্যায়ভাবে বেআইনী পেশীশক্তির বলে গাছ কাটতে বাধাঁ দেয়।

বাধা দিলে গাছ কাটা শ্রমিকরা চলে যায়। পরবর্তীতে বাচ্চু মিয়া ওঁই দিন বিকেলে কেন বাধাঁ দিয়েছে তা জানতে চাইলে প্রতিপক্ষ মোঃ খালেক পাটওয়ারী (৫৫) ,মোঃ মালেক পাটওয়ারী (৫০)সহ ৩/৪ জনের একটি দল সন্ত্রাসী কায়দায় আমাকে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করে আমাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে ও কিলঘুষি ও লাথি দিয়ে

এক পর্যায় মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করে মাথা ফাঁটিয়ে রক্তাত জখম করে। আমাকে খুন করার উদ্দেশ্যে আমার গলা চেপে ধরে শ^ারোধ করে মেরে পেলার চেষ্ট করে। এ সময় আমার সাথে থাকা ব্যবসায়ীক নগদ ৬৫ হাজার ৭শত টাকা জোর পূর্বক ছিনিয়ে নেয়।

বাচ্চু মিয়া আরোও জানান, প্রতিপক্ষ মোঃ খালেক পাটওয়ারী এলাকায় ব্যাপক ত্রাস চালিয়ে আসছে। একই এলাকার মৃর্ধ্যা বাড়ি ঝিলের পাড়ে তার নিয়মিত জুয়ার আসর, বিভিন্ন ব্যবসায়ীকে মারধোরের ঘটায় জড়িত থাকা সহ নারী নিপীড়নের ঘটনার সাথেও জড়িত রয়েছে বলে জানান। আমি আইনের আ¤্রয় নিয়েছি। আমার জান-মালের নিরাপত্তার জন্য আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

ঘটনার বিষয়ে এলাকার লোকজনের মধ্যে চির জীবন দাস(৭৫) , বিপ্লব দাস(৪৫) ও ভিবা রানী দাস(৫৫) ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বাচ্চু মিয়া শান্তি প্রিয় মানুষ সে খরিদ সূত্রে মালিক তার ক্রয়কৃত জমিতে খালেক পাটওয়ারীরা বাধা দিয়েছে। কেন বাধা দিয়েছে জানতে চাইলে তাকে রক্তাত জখম করে।

বাচ্চু মিয়া আরোও আমার ডাক চিৎকারে লোকজন আসিয়া আমাকে উদ্ধার করে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের নিয়ে ভর্তি করায়।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় বাচ্চু মিয়া বাদী হয়ে ২৮এপ্রিল/২০২০ইং এ একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
এএসআই রাজেশ পাল জানান, আমি অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট এলাকার চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে শুক্রবারের মধ্যে বিরোধ মিটিয়ে দিতে বলেছি।