শুক্রবার , জুন ১৪ ২০২৪

চাঁদপুর শহরে করোনার উপসর্গে স্বামী-স্ত্রী এবং জেলা পরিষদ সদস্যসহ ৪ জনের মৃত্যু

 

২৪ ঘন্টায় চাঁদপুর শহরে করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রাক্তন অধ্যক্ষ, স্বামী-স্ত্রী এবং জেলা পরিষদ সদস্যসহ ২৪ ঘন্টায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। পর পর ৪টি মৃত্যু শহরবাসীকে স্তম্ভিত করে তুলেছে।

রোববার রাত সোয়া ১১ টায় মারা গেছেন চাঁদপুর জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খোদেজা রহমান। তিনি চাঁদপুর শহর আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর রহমান পাটওয়ারীর স্ত্রী।

সোমবার বেলা ২টায় মারা গেছেন চা্ঁদপুর সরকারি মহিলা কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর মনোহর আলী।

একইদিন চাঁদপুর শহরের চিত্রলেখা মোড় এলাকার বাসিন্দা মুজিবুর রহমান পাটোয়ারী(৮৭) ও তার স্ত্রী রাবেয়া বেগম (৭২) করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।

রাবেয়া বেগম সোমবার সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে ও মুজিবুর রহমান পাটোয়ারী মঙ্গলবার ভোর ৫টায় মারা গেছেন। স্ত্রীর মৃত্যুর ১০ঘণ্টা পর স্বামী মারা যান। তাদের এক ছেলে ও নাতির করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

রোববার সকালে বৃদ্ধ স্বামী-স্ত্রীর নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল করোনা টেস্টের জন্য। সেই রিপোর্ট এখনো অপেক্ষমান। এ কারণে তাদেরকে চাঁদপুর শহরতলির আশিকাটি গ্রামের বাড়িতে বিশেষ ব্যবস্থায় বৃদ্ধাকে সোমবার রাতে বৃদ্ধকে মঙ্গলবার (আজ) সকালে দাফন করা হয়।

জানা গেছে, ওই বৃদ্ধ দম্পতির ছেলে ও নাতির করোনা শনাক্ত হয়েছে ইতিমধ্যে। এ কারণে পরিবারের অন্য সদস্যদের সাথে তাদেরও নমুনা সংগ্রহ করা হয় রোববার। রিপোর্ট আসার আগেই তারা মারা যান।

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদা বেগম পলিন বলেন, সন্ধ্যায় মারা যাওয়া বৃদ্ধার ছেলে ও নাতির শরীরে ইতিমধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে। বাকীদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। বৃদ্ধার মধ্যেও করোনার উপসর্গ বিদ্যমান ছিল। তিনি কিছুদিন ধরে জ্বর ও কাশিতে আক্রান্ত ছিলেন। আর সোমবার দিনভর তার প্রচুর পাতলা পায়খানা হয়েছে। রিপোর্ট আসলে জানা যাবে তারা করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কিনা।