শনিবার , জুলাই ২০ ২০২৪

চাঁদপুরে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত ৫৪, মোট ৮০৫ জন : পরিস্থিতি ক্রমেই অবনতির দিকে যাচ্ছে

আবু সুফিয়ান ভুইয়া

চাঁদপুর জেলায় আরো কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে ৫৪ জন। আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৫ জন।

জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে  শনিবার দুপুরে এ তথ্য জানানো হয়। এর মধ্যে মৃত ৫ জন। জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ, সব হিসাবকে ছাপিয়ে পুরো পরিস্থিতি ভয়াবহ ঝুঁকির দিকে যাচ্ছে।

সূত্র জানায়, শনিবার (২৭ জুন) ১১৭টি রিপোর্ট আসে। এর মধ্যে ৫৪টি রিপোর্ট করোনা পজেটিভ। বাকীগুলো নেগেটিভ। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৮০৫জন। এর মধ্যে মতলব উত্তরের ১৫জন, হাইমচরের ১০জন, মতলব দক্ষিণের ৯জন, চাঁদপুর সদরের ৬জন, হাজীগঞ্জের ৫জন, ফরিদগঞ্জের ৬জন ও কচুয়ার ৩জন রয়েছেন। মৃত বেড়েছে ৫জন।

নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ইতিপূর্বে উপসর্গে মৃত চাঁদপুর শহরের মাদ্রাসা রোডের শামছুল হক (৮০) ও বিষ্ণুদীর বোরহান (৬৫), মতলব উত্তরের জাকির হোসেন (৫৫) ও হাজীগঞ্জ উপজেলার মকিমাবাদ এলাকার বিলকিছ (৫০)ও রয়েছেন। এছাড়া মতলব উত্তরের ইসলামাবাদ ইউনিয়নের রায়পুর গ্রামের নিত্যলাল সরকার (৬৫) করোনায় আক্রান্ত অবস্থায় শুক্রবার বিকেলে নিজ বাড়িতে মারা যান।

সিভিল সার্জন ডা. সাখাওয়াত উল্লাহ আরো জানান, শনিবার পর্যন্ত চাঁদপুর থেকে মোট নমুনার পাঠানো হয়েছে ৪৩০৮টি। রিপোর্ট এসেছে ৩৮৪৫টি। রিপোর্ট অপেক্ষমান ৪৬৩টি। তিনি আরো জানান, জেলায় আক্রান্ত ৮০৫জনের মধ্যে ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২২৬জন। চিকিৎসাধীন আছেন ৫২৪জন।

এ নিয়ে জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ৮০৫জনের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ৩০৭জন, শাহরাস্তিতে ৯৩জন, মতলব দক্ষিণে ৮৮জন, হাজীগঞ্জে ৮২জন, ফরিদগঞ্জে ৭৮জন, হাইমচরে ৬২জন, মতলব উত্তরে ৬১জন ও কচুয়ায় ৩৪জন।
জেলায় মোট ৫৫জন মৃতের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : হাজীগঞ্জে ১৫জন, চাঁদপুর সদরে ১৫জন, মতলব উত্তরে ৮জন, ফরিদগঞ্জে ৬জন, কচুয়ায় ৫জন, শাহরাস্তিতে ৪জন ও মতলব দক্ষিণে ২জন।

এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা ৩২০জন। এর মধ্যে ইতিমধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ২৭৮জন। বর্তমানে আইসোলেশনে রোগীর সংখ্যা ৪২জন। এছাড়া জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির সংখ্যা ৬৪৮১জন। এর মধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৪১৭৫জন। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ২৩০৬জন।