শনিবার , জুলাই ২০ ২০২৪

ভাষাবীর এম এ ওয়াদুদ সেতুর সংযোগ সড়কের কাজ চলছে, শিগগিরই দ্বার উন্মোচন

ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে ভাষাবীর এম এ ওয়াদুদ সেতুর মূল কাজের ৯৫ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। চলমান ২৮ কোটি ৯৫ লক্ষ ৮২ হাজার ৮’শ ৫৪ টাকা ব্যয়ে সংযোগ সড়কের কাজ শেষ হলে শিগগিরই দৃষ্টিনন্দন এ সেতু জনসাধারণের জন্য উম্মুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের কর্তা ব্যক্তিরা।

যোগাযোগের ক্ষেত্রে কানেক্টিভিটির গুরুত্ব দিয়ে ২০১৭ সালের ১১ ফেব্রæয়ারী মাসে সেতুটির কাজের আনুষ্ঠানিক ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন চাঁদপুর -৩ (চাঁদপুর সদর- হাইমচর) আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি ও চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া।

সেতুর পশ্চিম প্রান্তে চাঁদপুর সদর উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের ছোট সুন্দর গ্রাম, পূর্ব প্রান্তে ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রাম।
সেতুটির দৈর্ঘ্য ২৭৪ মিটার এবং প্রস্থ ১০ মিটার (২৪ ফুট)। শুরুতে এ সেতুর প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছিল ৩৯ কোটি টাকা।

এর মাধ্যমে চাঁদপুর সদরের পূর্ব- দক্ষিনাঞ্চল ও ফরিদগঞ্জ উপজেলার উত্তর- পূর্বাঞ্চলের হাজার হাজার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার এক মাইলফলক হবে বলে জানান সেতুর উভয় পাশের এলাকাবাসী।

বালিথুবা পূর্ব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এইচ এম হারুনুর রশিদ বলেন, আমাদের এলাকায় এমন একটা সেতু নির্মিত হওয়ায় আমরা আনন্দিত। এ সেতুর নামও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠজন ভাষাবীর এম এ ওয়াদুদের নামে যা আমাদের গর্বিত করে।

তিনি এ সেতুটি নির্মাণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি ও চাঁদপুর- ৪ (ফরিদগঞ্জ) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়ার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (ফরিদগঞ্জ) ব্রীজের দায়িত্বরত উপ- সহকারী প্রকৌশলী মো. আইউব খান জানান, উভয় পাড়ের সংযোগ সড়কের জমি অধিগ্রহনের সময়ে জমির দাগ নাম্বার ভূলের সামান্য জটিলতার কারনে সংযোগ সড়কের কাজটি কিছুদিন বন্ধ ছিল। উল্লেখিত জটিলতা কাটিয়ে উঠে উভয় পাড়ের সংযোগ সড়কের কাজ পুরো দমে এগিয়ে নিচ্ছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। যা অচিরেই শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করছি।
ক্যাপশনঃ ফরিদগঞ্জ- চাঁদপুর সদরে ভাষাবীর এম এ ওয়াদুদ সেতুর সংযোগ সড়কের কাজ চলছে।